স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক

আমি বাবা হবো না – অটুট থাকুক ভালোবাসা

আমি বাবা হবো না – অটুট থাকুক ভালোবাসা: আমার পরিবার তখন আমার উপর চাপ দেয়। আমার স্ত্রী কে ছেড়ে দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করতে। কিন্তু আসল সত্য টা তো আমি জানি।


মূলগল্প

ট্রেনে উঠেই দেখি সিট টা জানালার পাশে পরেছে। মনোরঞ্জন পরিবেশ। পাশে আরো দুটা সিট আছে মনে মনে ভাবছি পাশের সিটে সুন্দরী মেয়ে বসলে ভ্রমণ টা বেশ ভালোই হবে।

  • এটা ভাবতে ভাবতে হঠাৎ একজন বললো বাবা জানালার পাশের সিট টা কি দেওয়া যাবে।
  • আমি কিছু টা বিরক্ত হলাম। কিন্তু উপায় কি মুরুব্বি মানুষ যখন বলছে না করতে পারলাম না। তাই জানালার পাশের দুটি সিট ছেড়ে দিলাম। দুজন মুরুব্বি বয়স আনুমানিক ৭০ বছর হবে। দুজন মনে হয় স্বামী স্ত্রী হবে।
  • হঠাৎ একজন বলে উঠলো কোথায় যাবে বাবা।
  • আমি বললাম রাজশাহী স্টেশনে যাবো। আমি বললাম আপনারা কোথায় যাবেন।
  • উত্তরে বললো আমারাও রাজশাহী স্টেশনে নামবো।
  • আচ্ছা আপনারা কি স্বামী স্ত্রী।
  • উনি বললো হে বাবা আমরা স্বামী স্ত্রী।
  • আমার দাদার বয়সের তাই বললাম দাদা আপনারা কত বছর ধরে একসাথে আছেন।
  • বাবা আমরা প্রায় ৪৫ বছর থেকে একসাথে আছি।
  • আপনার সন্তান কয়টা।
  • একটাও না।
  • আমি একটু অবাক হয়ে বললাম আপনারা এতো বছর ধরে একসাথে আছেন কোন সন্তান নাই আপনার দ্বিতীয় বিয়ে করেন নাই কেন। আর আপনাদের জীবনের গল্পটা কি শুনতে পারি।

ল্যান্ড লাইনের যুগের প্রেম। আমাদের সম্পর্ক কেউ মেনে নিতে চাই নি। আমরা পালিয়ে বিয়ে করি। এরপর প্রায় ২ বছর আমরা পরিবার থেকে দূর ছিলাম।

তারপর আমাদের উভয়ের পরিবার আমাদের সম্পর্ক মেনে নেয়। আমাদের পরিবার চাপ দেই সন্তান নেওয়ার জন্য। কিন্তু কিভাবে বলবো আমি কখনো বাবা হতে পারবো না। কিন্তু আমার স্ত্রী যদি দ্বিতীয় বিয়ে করে তাহলে মা হতে পারবে। আমার স্ত্রী কে আমি অনেক বুঝিয়েছি আমাকে ছেড়ে দিতে। দ্বিতীয় বিয়ে করতে। কিন্তু আমার স্ত্রী আমরা আমাকে কখনো ছাড়তে রাজি না।

  • পরিবার থেকে যখন সন্তানের জন্য চাপ দেই। তখন আমার স্ত্রী আমার সব সমস্যা তার ঘাড়ে চেপে নেয়। আমার পরিবার কে বলে আমি কখনো মা হতে পারবো না। কিন্তু আপনাদের ছেলে চাইলে বাবা হতে পারে দ্বিতীয় বিয়ে করে। আমার স্ত্রী কখনও আমাকে কারোর সামনে দোষি হতে দেই নি।
  • আমার পরিবার তখন আমার উপর চাপ দেয়। আমার স্ত্রী কে ছেড়ে দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করতে। কিন্তু আসল সত্য টা তো আমি জানি।
  • পরিবার, পাড়া প্রতিবেশীর কথার জন্য আবার আমরা আমাদের বাসা ছেড়ে অন্য জায়গায় চলে যাই। আমাদের ভালোবাসা কখনো আমাদের সন্তানের কমতি অনুভব করতে দেই নি।

আমি বললাম, আচ্ছা আপনাদের কাছে ভালোবাসার অর্থ কি? তখন দাদি দাদার ঘাড়ে মাথা দিয়ে বললো, এই যে প্রায় ৪৫ বছর ধরে আমরা একসাথে আছি। কোন বাধা আমাদের ভালোবাসা কে দমিয়ে রাখতে পারে নাই। বিশ্বাস নিয়ে আমরা দুজন দুজনের হাত ধরে বেঁচে আছি। এটাই ভালোবাসা।

  • এভাবে জীবনের গল্প শুনতে শুনতে আমরা আমাদের গন্তব্যে পৌঁছে গেলাম। ট্রেন থেকে নেমে আমি তাদের হেঁটে যাওয়ার দিকে চেয়ে থাকলাম। নিজের অজান্তেই চোখ দিয়ে দু ফোঁটা পানি বেরিয়ে আসলো। মনে মনে ভাবতে থাকলাম, দুটা মানুষের মধ্যে কত পরিমাণ ভালোবাসা থাকলে শত বাধা পেরিয়ে একসাথে থাকতে পারে।

লেখা – ওয়াহেদ মাহমুদ

সমাপ্ত

(পাঠক আপনাদের ভালোলাগার উদ্দেশ্যেই প্রতিনিয়ত আমাদের লেখা। আপনাদের একটি শেয়ার আমাদের লেখার স্পৃহা বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। আমাদের এই পর্বের “আমি বাবা হবো না – অটুট থাকুক ভালোবাসা” গল্পটি আপনাদের কেমন লাগলো তা কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন। পরবর্তী গল্প পড়ার আমন্ত্রণ জানালাম। ধন্যবাদ।)

আরো পড়ূন – জান, একটা কিস করতে দেবে – প্রেমিকাকে প্রথম কিস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!