মিষ্টি প্রেমের গল্প

রোমান্টিক লাভ স্টোরি – সিনিয়র আপু যখন বউ – পর্ব ৩

রোমান্টিক লাভ স্টোরি ৩

রোমান্টিক লাভ স্টোরি – সিনিয়র আপু যখন বউ – পর্ব ৩: গত পর্বে রিমঝিম আপুর হটাৎ বিয়ের পাগলামি দেখেছেন, আমার প্রতি সে যে কতটা উইক হয়ে গেছে তা বুঝতে পেরেছেন নিশ্চয়ই। তো এরপর কি হলো চলুন জানি।

সিরিয়াস মজা

রিমঝিম আপুঃ কাজী অফিসে, আজ তোকে বিয়ে করবো।

আমিঃ কি বলছো এসব? তোমার মাথা ঠিক আছে!

রিমঝিম আপুঃ আমাকে বিয়ে করবি না কেন? আমি কি দেখতে খারাপ?

আমিঃ না, সেটা না। কিন্তু তোমার সাথে আমার যায় না।

রিমঝিম আপুঃ তাই নাকি। কিন্তু আমি যে তোকেই বিয়ে করবো। (মুচকি হেসে)

রিমঝিম আপুর কথাগুলো শুনে চোখ আকাশে। একদৃষ্টিতে তার দিকে তাকিয়ে আছি।

রিমঝিম আপুঃ আরে ভ্যাবাচেকা খেয়ে গেলি নাকি। আমি তো মজা করছিলাম তোর সাথে।

আপুর কথা শুনে কিছুটা স্বস্তি পেলাম।

আমিঃ কই যাবে এখন?

রিমঝিম আপুঃ আজ তোকে গুছিয়ে আনবো।

আমিঃ মানে বুঝলাম না।

রিমঝিম আপুঃ মানে তোর এই চুলের ডালা কাটতে হবে। খারাপ লাগছে দেখতে তোকে।

আমিঃ লাগবে না, আমি এরকমি ঠিক আছি।

রিমঝিম আপুঃ আর একবার লাগবে না বললে থাপ্পড় মেরে গাল লাল করে দিব।

আপুর কথা শুনে চুপ হয়ে গেলাম। তারপর দুজনে বেরিয়ে পরলাম।

নিজের মত করে সাজানো

রিমঝিম আপু গাড়ি চালাচ্ছে আর আমি চুপচাপ বসে আছি।

রিমঝিম আপুঃ কি হলো চুপচাপ বসে আছিস যে, কিছু তো বল।

আমিঃ কী বলবো?

রিমঝিম আপু সেলুনে নিয়ে গিয়ে আমার চুলের স্টাইল করিয়ে দিলো। তারপর দুজনে শপিং মলে গেলাম।

আমিঃ এখানে কেনো আসছো?

রিমঝিম আপুঃ শপিং করবো।

আমিঃ ও আচ্ছা কি কিনবেন?

রিমঝিম আপুঃ আবার আপনি বলিস! (একটু রাগ দেখিয়ে আপু)

আমিঃ সরি। আসলে আমার আপনি বলাটাই বেশি ভালো লাগে।

রিমঝিম আপুঃ আরেক বার বলে দেখিস দাত ভেংগে দিবো।

আমিঃ আচ্ছা বাদ দেও তো। কি কিনবা তাড়াতাড়ি কিনো।

রিমঝিম আপুঃ আমি নিজের জন্য কিনবো কে বললো। তোর জন্য কিনবো।

আমিঃ আমার জামা কাপড়ও কিনবে কেনো?

রিমঝিম আপুঃ এমনি আমার ইচ্ছে হয়েছে, তাই।

আমিঃ কিন্তু আমার কিছু লাগবে না।

রিমঝিম আপুঃ বেশি কথা বলবি না।

তারপর রিমঝিম আপু নিজে পছন্দ করে শার্ট প্যান্ট কিনলো। আমি গিয়ে বিল দিয়ে দিলাম।

মিষ্টি শাসন ও লুকায়িত ভালবাসা

রিমঝিম আপু বিল দিতে গিয়ে ঘুরে আসলো।

রিমঝিম আপুঃ তোকে বিল দিতে কে বলছে?

আমিঃ আমার জিনিস, তাই আমি বিল দিলাম।

রিমঝিম আপুঃ কেন আমি কি বলছি তোকে টাকা দিতে।

আমিঃ না, এমনি দিলাম।

রিমঝিম আপুঃ আরেকদিন যদি পাকনামি করিস তাহলে বুঝতে পারবি। চল এখন।

রিমঝিম আপু আর কোনো কথা বললো না।

রেস্টুরেন্ট গিয়েও আপু কোনো কথা বলছে না। মুখে রাগের ছাপ দেখা যাচ্ছে। রিমঝিম আপু ধিরে ধিরে আমার জীবনটাকে নিয়ন্ত্রণ করছে। প্রথমের দিকে খারাপ লাগলেও তার শাসনগুলো এখন খুব ভালো লাগে। পুরোনো কিছু স্মৃতি জেগে উঠছে।

আমিঃ এখনো রাগ করে আছো?

রিমঝিম আপুঃ চুপ।

আমিঃ কি হলো সরি আমি বুঝতে পারি নি সত্যি।

রিমঝিম আপুঃ হইছে আর সরি বলতে হবে না।

তারপর খাওয়া দাওয়া করে বেরিয়ে আসলাম।

এবার বিল দিতে গেলাম না? ফ্রিতে বকা খাওয়ার শখ নেই আমার। রিমঝিম আপু আমাকে বাসায় নামিয়ে দিয়ে চলে গেলো।

বিকেলে আর বাসা থেকে বের হলাম না কাজ ছিলো। তাই রাতে খাওয়া করে ঘুমিয়ে পরলাম।

অন্যরকম আমি আজ

সকালে ফোনের রিংটোন শুনে ঘুম ভেংগে গেলো। ফোনটা হাতে নিয়ে দেখি আপুর ফোন দিয়েছে।

আমিঃ হ্যালো আপু, বলো।

রিমঝিম আপুঃ কই তুই?

আমিঃ কেন বাসায়?

রিমঝিম আপুঃ তাড়াতাড়ি ক্যাম্পাসে আয়।

ফ্রেশ হয়ে কলেজে গেলাম। কলেজে ঢুকতেই অনেকে হা হয়ে তাকিয়ে আছে। নিজেকেই কেমন জেনো লাগছে!

কারণ নিজের স্টাইল চেঞ্জ করেছি। অগোছালো ছেলেটা আজ ফিটফাট হয়ে কলেজে এসেছে তাই হয়তো সবাই তাকিয়ে আছে।

আমি রিমঝিম আপুকে খুজতে লাগলাম।

একটু পর আপুকে দেখলাম তিন চারটা মেয়ের সাথে একাডেমিক ভবনের দিকে যাচ্ছে। আমি ডাক দিলাম।

আমিঃ রিমঝিম আপু!

আমার ডাক শুনে পিছনে ফিরে তাকালো। আমি ওদের কাছে গেলাম।

আমিঃ কই যাও?

রিমঝিম আপুঃ চুপ।

রিমঝিম আপুঃ ছেলেটা কেরে দেখতে তো খুব কিউট! (রিমঝিম আপুর বান্ধবী)

রিমঝিম আপু তখন তার বান্ধবীর দিকে রাগি লুকে তাকালো।

রিমঝিম আপুঃ তোরা যা আমি পরে তোদের সাথে কথা বলছি। (রিমঝিম আপু তার বান্ধবিদের উদ্দেশ্য করে বললো)

রিমঝিম আপুর বান্ধবিরা আপুর চেহারা দেখে হাব ভাব বুঝতে পারছে। তাই কিছু না বলে চলে গেলো।

এই ছেলে তোমাকে দেখতে না খুব কিউট লাগছে। (যেতে যেতে রিমঝিম আপুর এক বান্ধবি বললো)

রিমঝিম আপু চত্ত্বরে গিয়ে বসে পরলো।

আমি দুইজন বসার মতো দূরত্ব রেখে বসলাম। দুজনে চুপচাপ বসে আছি।

এত রাগ কিসের কে জানে? আমি তো আজ আপনি করেও বলি নি। কিন্তু রিমঝিম আপুকে রাগি লুকে অনেক কিউট লাগে।

কাছে আসার গল্প

আমি কিছুদিনে লক্ষ্য করেছি রিমঝিম আপু রাগলে গাল দুটো লাল হয়ে যায়।

আমিঃ আপু আজ এত রেগে কেনো?

রিমঝিম আপুঃ চুপ।

আমিঃ কি হলো বলছো না যে। আমি তো আজ আপনি করে বলিও নি তাহলে রাগ করে আছো যে।

রিমঝিম আপুঃ তোর কি কেউ আসবে?

আমিঃ আমার আবার কে আসবে?

রিমঝিম আপুঃ তাহলে মধ্যে যে এতবড় জায়গা ফাকা রেখে বসে আছিস কেন?

আমিঃ আরে পাশে বসলে সবাই নেগেটিভ মাইন্ডে করবে। কেউ ভাববে না যে তুমি আমার আপু লাগো।

রিমঝিম আপু আমার কলার ধরে নিজের পাশে টেনে বসালো।

রিমঝিম আপুঃ আমি তোর কি লাগি ভালো করে বল।

আমিঃ তুমি আমার সিনিয়র সেই হিসেবে আপুই তো হওয়ার কথা।

রিমঝিম আপুঃ আরেকদিন যদি এই আবাল মার্কা কথা বলেছিস তাহলে তোর খবর করে দিবো বলদ কোথা কার।

তখন রিমঝিম আপুর বান্ধবি কোথা থেকে এসে জেনো পাশে বসলো।

এবার রিমঝিম আপু যা করলো…চলবে…

পরের পর্ব- রোমান্টিক লাভ স্টোরি – সিনিয়র আপু যখন বউ – পর্ব ৪

Related posts

মিষ্টি প্রেমের গল্প – পর্ব ৮ | স্যারের সাথে প্রেম | Love Story Bangla

valobasargolpo

মিষ্টি প্রেমের গল্প – পর্ব ১৩ | স্যারের সাথে প্রেম | Love Story Bangla

valobasargolpo

Leave a Comment

error: Content is protected !!