ব্রেকাপ গল্প

প্রাক্তন এর আবারো ফেরা – ব্রেকাপ প্রেমের গল্প

প্রাক্তন এর আবারো ফেরা – ব্রেকাপ প্রেমের গল্প: Ex হচ্ছে ক্ষণিকের মোহ। আর প্রাক্তন অধিকারহীন। কিছু ভালোবাসা, ভালোলাগা, আবেগ, অনুভূতি, রাগ, অভিমানের নাম। যেগুলো ছিলো, আছে, থাকবে। কিন্তু কখনো প্রকাশ করা হয়ে উঠবে না।


মূলগল্প

তোমার সাথে আমার কিছু কথা আছে একটু এদিকে আসবা? – কথাটা শুনে নীল মাথা তুলে দেখে তার প্রাক্তন দিশা তার সামনে দাঁড়িয়ে আছে।

আমার সাথে আপনার কি কথা থাকতে পারে? আর আপনি আমার কাছে কেন আসছেন?

বলছি তার আগে প্লিজ একটু এদিকে আসো।

দিশার কথায় নীল অনিচ্ছা সত্ত্বেও বন্ধুদের বিদায় বলে দিশার সাথে আসলো।

তারা এখন পাশের একটা পার্কে। নীল একটা বেঞ্চে বসে আছে। আর দিশা নীলের সামনে দাঁড়িয়ে নীলের দিকে তাকিয়ে আছে।

আমায় বসতে বললে না? – দিশার কথা শুনে বিরক্তিকর মুখ নিয়ে দিশার দিকে তাকিয়ে বললো- আমি এসব আলগা পিরিত দেখানোর জন্য এখানে আসি নি। যা বলার জন্য এখানে এনেছেন তাড়াতাড়ি বলুন।

নীলের এভাবে কথা বলতে কষ্ট হচ্ছিল। কিন্তু তবুও সে রাগি গলায় কথা বললো।

দিশা নীলের পাশে বসে নীলের হাতটা ধরলো- আমরা কি আবার আগের মতো হতে পারি?
What? কি বললেন আপনি? – হাতটা সরিয়ে নিলো নীল।

আমি আবার তোমার জীবনে আসতে চাই।
Wow! What a jokes!

তোমার কাছে এটা মজা মনে হতে পারে। কিন্তু আমি ভেবে দেখলাম তোমার মতো করে কেউ আমায় ভালোবাসতে পারবে না।

এবার নীল একটু জোরেই হেঁসে দিলো – আপনার তো গত সপ্তাহে Break- up হইছে তাই না? এই এক সপ্তাহেই বুঝতে পারলেন যে আমার মতো কেউ ভালোবাসতে পারবে না?
দিশা এবার নিচের দিকে তাকিয়ে থাকলো। কোনো উত্তর দিলো না। নীল আবার বলা শুরু করলো – আপনার সুদর্শন রোমান্টিক প্রেমিক আপনাকে ছেড়ে চলে গেলো?

আমি মানুষ চিনতে ভুল করেছিলাম। আর তুমি আমায় যাই বলো না কেন আমি জানি তুমি এখনো আমায় ভালোবাসো। তাই আবার নতুন করে ভালোবাসতে চাই আমি তোমায়। তুমি ও কি আবার নতুন করে ভালোবাসবে আমায়।

আবার ভালোবাসার মতো ভুলটা করতে পারি কিন্তু বিশ্বাস করার মতো ভুলটা যে আর আমায় দিয়ে হবে না। আর বিশ্বাস ছাড়া কি ভালোবাসা হয়? আপনার প্রেমিকের কাছে হয়তো হতে পারে কিন্তু আমার কাছে হয় না। তাই আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।

আমি কখনো এমন কিছু করবো না যাতে তোমার বিশ্বাস ভাঙ্গে।

আচ্ছা! তাই বুঝি? আমার কেন জানি না আপনার সব কথাতেই হাসি পাচ্ছে। কেন বলেন তো?
প্লিজ নীল, আমায় বিশ্বাস করো। আমি কখনো তোমায় ছেড়ে যাবো না।

নীল পকেট থেকে মোবাইল টা বের করে একটা রেকর্ড চালিয়ে দিলো- আমি কখনো আমার জানটাকে ছেড়ে যাবো না। তোমার পাশে থেকে সারা দুনিয়ায় সাথে যুদ্ধ করে যাবো। সবার সাথে লড়াই করে তোমায় জিতে নিবো।

চিনতে পাচ্ছেন কন্ঠটা?
কিন্তু আমি তো আবার ফিরে আসতে চাচ্ছি।

আমি ময়লার ড্রেনে পড়ে যাওয়া জিনিস তুলে নেই না। সেই অভ্যাস আমার নেই।

আমি তো তোমায় ভালোবাসি। আমায় এভাবে কষ্ট দিয়ে ফিরিয়ে দেওয়া তোমার উচিত হচ্ছে না।

কেন আমি আপনাকে ভালোবাসি নি? নাকি আপনি যখন আমায় ছেড়ে চলে গেছিলেন তখন কষ্ট পাই নি? আমি জানি আমি ভালোবাসা প্রকাশ করতে পারি না। কিন্তু আমার সর্বস্ব দিয়ে আপনাকে ভালোবেসেছিলাম। আমায় দিয়ে যেভাবে ভালোবাসা সম্ভব সেভাবেই ভালোবেসেছিলাম। আমার দোষ কি ছিলো? আমি কি আপনাকে দামি রেস্টুরেন্টে খাওয়াই নি? না কি ঘুরতে নিয়ে যাই নি? আমার শুধু একটাই অপরাধ ছিলো আমি একটু শ্যাম বর্ণের। কিন্তু এটা তো আমার দোষ ছিলো না। আপনি আমায় সেই দোষের জন্য শাস্তি দিলেন যেটাতে আমি বিন্দু মাত্র দোষী নই।
আমায় তুমি প্লিজ ক্ষমা করে দাও।

আপনি এভাবে আমায় লজ্জা দিবেন না। ক্ষমা তো আমার চাওয়া উচিত আমি শ্যাম বর্ণের হয়ে আপনাকে ভালোবেসেছিলাম।
তোমাকে পেতে আমায় কি করতে হবে বলো। আমি তাই করতে রাজি।

আমি কোনো ট্রফি নই যে ১০০ মিটার দৌড়ে আসলে আমায় পেয়ে যাবেন।
কি করতে হবে তুমি বলো আমায়?

আপনি শেষ কথাটা কি বলেছিলেন আপনার মনে আছে? হয়তো নেই, তোমার সাথে থাকা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। আমায় আর বিরক্ত করিও না। ঐদিনের ঐ কথাটাও আমি রেকর্ড করে রাখছিলাম। এবং এখন আমার কাছে আছে। যখন কোনো মেয়ে আমায় প্রেম নিবেদন করে তখন আমি এটাই শুনি।
তুমি যদি আমায় এতোই ঘৃণা করো তবে প্রেম করো না কেন?

আমি বলবো না যে সব মেয়ে আপনার মতো, কিন্তু ভয় হয়। যদি আপনার উপর রাগের কারণে কোনো নিষ্পাপ মেয়ের জীবনে ধ্বংস করে দেই। তাই নতুন করে কাউকে জড়ানোর সাহস হয় নি। এতো কথা বলে কি হবে বলুন? এর থেকে ভালো আপনি আপনার সুদর্শন প্রেমিকের কাছে যান। আর তা না হয়ে আপনার পিছনে তো অনেক সুন্দর ছেলে আছে তাদের কাউকে বেছে নেন।
আমার তোমাকেই লাগবে।

পৃথিবীতে এমন অনেক কিছুই আছে যা একবার হারিয়ে গেলে আর ফিরে পাওয়া যায় না। তার মাঝে মনে করেন আমি একটা।
আমি কি এতটাই খারাপ হয়ে গেছি?

আপনি খারাপ কি না সেটা বিচার করার আমি কে? তবে আমি নতুন করে কষ্ট পেতে চাই না। আপনি একবার ছেড়ে গেছিলেন আবার যে যাবেন না তার কি নিশ্চয়তা আছে? আর প্রথমবারের কষ্টটা অনেক চেষ্টা করে কাটিয়ে উঠতে পেরেছি, যদিও বা এখনো পুরোপুরি পারি নি। এর মাঝে আবার ঐ একই কষ্ট যদি পাই তবে হয়তো সহ্য করতে পারবো না। তাই আমি চাইনা আমার জীবনটা অকালে ঝরে যাক। কারণ দুনিয়ায় কাছে আমার মূল্য না থাকতে পারে কিন্তু আমার পরিবারের কাছে আমি রাজকুমার।

তাহলে আমি কি চিরদিন তোমার Ex হিসাবেই থেকে যাবো? – দীর্ঘনিশ্বাস ফেলে বললো দিশা।

আপনি তো আমার Ex নন। আপনি আমার প্রাক্তন।
মানে তো একই হলো, তাই না?

Ex হচ্ছে ক্ষণিকের মোহ। আর প্রাক্তন অধিকারহীন। কিছু ভালোবাসা, ভালোলাগা, আবেগ, অনুভূতি, রাগ, অভিমানের নাম। যেগুলো ছিলো, আছে, থাকবে। কিন্তু কখনো প্রকাশ করা হয়ে উঠবে না। ভালো থাকবেন। আসি।

নীল চলে আসলো। আর দিশা ওখানেই বসে নীরবে চোখের পানি ঝাড়াতে লাগলো।

লেখা – সুমন আল ফারাবি

সমাপ্ত

(পাঠক আপনাদের ভালোলাগার উদ্দেশ্যেই প্রতিনিয়ত আমাদের লেখা। আপনাদের একটি শেয়ার আমাদের লেখার স্পৃহা বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। আমাদের এই পর্বের “প্রাক্তন এর আবারো ফেরা – ব্রেকাপ প্রেমের গল্প” গল্পটি আপনাদের কেমন লাগলো তা কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন। পরবর্তী গল্প পড়ার আমন্ত্রণ জানালাম। ধন্যবাদ।)

আরো পড়ূন – ভালোবাসার নামে সেক্স অতঃপর ছাড়াছাড়ি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button