বাসর রাত

আদর্শ বাসর রাত এর ৫টি গোপন সূত্র | Perfect Basor Raat Tips

আদর্শ বাসর রাত

আদর্শ বাসর রাত এর ৫টি গোপন সূত্র: আসলে বিয়ের রাতে ভালবাসা ও যৌনতা এমন দুটো জিনিস যা প্রতিটি ছেলে বা মেয়েই স্বপ্ন দেখে। এটি একটি মিষ্টি আশ্চর্য বা বেদনাদায়ক অভিজ্ঞতা হবে কি? কেউ উত্তরটি জানে না যতক্ষণ না তারা এটি অভিজ্ঞতা না করে। যদি নববধূ কুমারী হয় তবে সন্দেহ নেই, এটি আজীবন অভিজ্ঞতার মধ্যে একবার হবে। ভয়ের সাথে মিশে আসা উদ্দীপনা প্রত্যাশাগুলি প্রতিটি কনের হৃদয় এবং মনকে প্রভাবিত করে, যারা খুব প্রতীক্ষিত রাতের অপেক্ষায় থাকে। আপনি যদি আপনার বাসর রাত স্মরণীয় করার অপেক্ষায় থাকেন তবে আমরা আপনার বিয়ের রাতের জন্য আপনাকে প্রস্তুত করার জন্য ৫টি আশ্চর্যজনক টিপস নিয়ে এসেছি, সাথে একটি বোনাস টিপস। চলুন শুরু করা যাক-

টিপস ১: শান্ত হোন

যখন লক্ষ লক্ষ সংবেদন আপনার স্নায়ু আক্রমণ করে তখন সবচেয়ে বেশি কঠিন কাজ হয় শান্ত থাকা। তবে আপনি যদি আপনার শীতলতা হারিয়ে ফেলেন তবে এটি কেবল আরও কঠিন হয়ে উঠবে। প্রথমবারটি খুব বিশ্রী হতে পারে তবে একটি বিষয় অবশ্যই নিশ্চিত, এটি অনুমানও হতে পারে। নিজেকে প্রস্তুত করার সর্বোত্তম উপায় হ’ল রাতে আরাম এবং উপভোগ করা।

কিছুক্ষণ গল্প করা বা একটু চুপ থাকা। সারাদিনের ফটোসেশন, চিন্তা, বিয়ের গাড়িতে ভ্রমণ ইত্যাদি বিষয় আপনাকে ক্লান্ত করতে পারে। আর আপনি যদি এই ক্লান্তি নিয়ে বাসর ঘরে উত্তেজিত হয়ে যান দ্রুত, তাহলে মিলনটাই বাজে হয়ে যাবে। তাই শরীর ও মনের প্রশান্তি সবার আগে নিয়ে আসুন, দরকার হলে দুজনে কিছুক্ষণ ঘুমিয়ে নিতে পারেন বা জড়িয়ে ধরে থাকতে পারেন।

টিপস ২: কুমারীত্ব নিয়ে প্রশ্ন করবেন না

প্রথমবার মিলনে রক্তপাত হতে পারে কারণ প্রথম সেক্স করার সময় তার হাইমন ভেঙে যায়। হাইমেন নামক পাতলা ঝিল্লি অক্ষত থাকলে এটি কেবল সত্য হবে। কিন্তু মেয়েরা সাইক্লিং, জলের ক্রীড়া, রাইডিং এবং অন্যান্যগুলির মতো কঠোর শারীরিক ক্রিয়াকলাপগুলি এমনভাবে করে যা হাইমন ছিঁড়ে যেতে পারে এবং তিনি এটি সম্পর্কে সচেতনও নাও হতে পারেন।

সুতরাং, আপনার বিয়ের রাতে প্রথমবার সেক্স করার পরে আপনার রক্তক্ষরণ না হওয়া কোনও বিষয় নয়। এটা নিয়ে একদম ভাববেন না। রক্তপাত না হওয়াটাই বরং স্বাভাবিক কারণ এখন মেয়েরা পরিশ্রম করে, বাইরে চলাফেরা করে বেশি।

টিপস ৩: পূর্ণ তৃপ্তি নিয়ে ভাববেন না

হলিউড বা বলিউডের মুভিগুলিতে আপনি যা দেখেন তা ভেবে বোকা বোধ করবেন না। সিনেমা বা অন্য ভিডিওতে যা দেখেন তা সবটাই সত্য না, বেশ কয়েকবার রিটেক ও ইডিটিং করার পর আপনাদের দেখানো হয়। পরিষ্কার ভাবে বলতে গেলে একটু বাড়িয়ে এবং রঙচঙ লাগিয়ে তারা এই ভিডিও বা সিনেমা আপনাদের সামনে তুলে ধরে।

তাই আপনি আপনার মত করে উপভোগ করুন, কোন অভিনয় নয়, যতটুকু সত্য ততটুকুই উপভোগ করুন। প্রথমবার একটু কম হলে একাধিকবার অভ্যাসের মাধ্যমে আরো ভাল কিছু সম্ভব। তাই একে অপরেকে অনুপ্রেরণা এবং প্রশংসার মাধ্যমে পরবর্তী ধাপের জন্য প্রস্তুত করুন। সুতরাং পরিপূর্ণতার লক্ষ্য না রেখে এটিকে একটি স্মরণীয় রাত ও মুহুর্ত হিসাবে তৈরি করতে প্রস্তুত থাকুন।

টিপস ৪: আফসোস করবেন না

প্রতিবার মিলন করার পরে প্রচণ্ড উত্তেজনা পাওয়া সহজ নয়। বাস্তবে, প্রথমবার সেক্স করার সময় অনেক লোক কখনই অর্গাজম বা পূর্ণ তৃপ্তি অনুভব করে না। এটার জন্য অনেকগুলি কারণ দায়ী। তাই প্রথম রাতে কোনও উত্তেজনা না পেলে হৃদয় হারাবেন না। একে অপরের মাঝে বোঝাপড়া এবং ভালবাসা তৈরি হয়ে গেলে মিলনে পূর্ণ তৃপ্তি এমনিতেই আসবে।

তাই আফসোস না করে, একে অপরের ভাল বন্ধু হোন, বুঝতে চেষ্টা করুন, কাজে সাহায্য করুন, যত্ন দিন। দেখবেন, একটা মধুর সম্পর্ক আপনাদের মাঝে তৈরী হবে, যা আপনাদের প্রতিটি সময় উপভোগ করাবে।

টিপস ৫: মন পড়ার চেষ্টা করুন

এই প্রথম রাতের আনন্দময় মুহুর্তগুলিকে পুরোপুরি উপভোগ করার জন্য, আত্মবিশ্বাসী থাকা এবং অভ্যন্তরীণ উদ্বেগগুলি দূরে রাখা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই প্রথম রাতে কেবল দুটি প্রাণই মিলিত হয় না দুটি মনও মিলিত হয়। এর জন্য, প্রথম উদ্যোগটি কেবল এক দিক থেকে হওয়া উচিত নয়, তাদের উভয়কেই এটি একসাথে শুরু করা উচিত। উচ্ছ্বাসের সময়, খুব উত্সাহ প্রদর্শন করবেন না এবং আপনার আচরণের রূপ না নিয়ে স্বাভাবিকতা আনুন। একদিনে সমস্ত স্বপ্ন পূরণের কথা ভাবেন না, এই দিনটি আপনার সঙ্গীর মনকে সনাক্ত করার চেষ্টা করুন।

যদি তিনি আপনার ইচ্ছার সাথে একমত হন তবে কেবল মিলনের চেষ্টা করুন, অন্যথায় একে অপরের সাথে প্রেমময় বিষয়গুলি বলে সময় ব্যয় করুন। বিয়ের আগে স্বামী বা স্ত্রী হিসেবে এক অপরকে নিয়ে কি কি ভেবেছেন, কিভাবে মিস করেছেন তা নিয়ে কথা বলতে পারেন। একটা মেয়ে বা ছেলেকে পটানোর জন্য যে কাজগুলো করা দরকার তাই করুন। ভাববেন না যে, আপনি বিয়ে করেছেন দেখে সব আপনার, আর পটানোর কি দরকার! এটাই সবচেয়ে ভুল ধারণা, বিয়ে করা মানে সে আপনাকে মনে প্রাণে ভালবেসে ফেলেছে বিষয়টা এমন না। তাই কাউকে পটানোর জন্য যেসব রোমান্টিক ও মধুর চেষ্টা আছে তা করুন।

বোনাস টিপস: ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করা

আপনার যৌনতা হোক বা না হোক, আপনার বিয়ের রাতটি আপনার জীবনের অন্যতম স্মরণীয় মুহূর্ত হয়ে উঠবে। আপনার সঙ্গীর সাথে কথা বলুন, হাসুন এবং আপনার মতামতগুলি ভাগ করুন। এই রাতে আপনাকে সেই ব্যক্তির নিকটে নিয়ে আসে যিনি আপনার আজীবন অংশীদার হবেন। সমস্ত ভয়কে ছেড়ে দিন এবং রাতে উপভোগ করুন!

প্রথম রাতে নিজেই সমস্ত কিছু জানা উচিত নয়। বরং আপনি আস্তে আস্তে একে অপরকে জানার চেষ্টা করুন। আপনার সঙ্গীর সম্পর্কে আপনি কী ভাবেন, আপনার বিবাহ সম্পর্কে আপনি কী ভাবেন, এই সমস্ত বিষয়ে তাদের সাথে কথা বলুন। কিভাবে সংসারটাকে সাজানো যায়, বাচ্চা নিয়ে পরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয় একে অপরের সাথে শেয়ার করুন।

আশা করি, এই টিপস গুলো মেনে চললে আপনার বাসর রাত একটি স্মরণীয় সময় হয়ে থাকবে এবং তৃপ্তির সাথে রাত অতিবাহিত করতে পারবেন। একটি আদর্শ বাসর রাত এর মাধ্যমে আপনাদের দাম্পত্য জীবন সুখের এবং শান্তিতে কাটুক এই প্রত্যাশা করে আজকের মত এখানেই শেষ করছি। আপনাদের বিভিন্ন সমস্যা আমাদের কমেন্টে জানাতে পারেন, আমরা সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব।

আরোও পড়ুন- ইসলামিক বাসর রাত ১০টি করণীয় ও বর্জনীয় কাজ হাদিসের আলোকে

Related posts

অন্ধকার বাসর রাত গল্প – শান্তির ব্যথা ও চরম সুখ

valobasargolpo

বাসর রাত গল্প – দুষ্টু হিটলার বউ ইজ্জত শেষ করে দিল | Basor Raat

valobasargolpo

Leave a Comment

error: Content is protected !!